সোমেন চন্দ

সোমেন চন্দ (১৯২০-১৯৪২) রাজনৈতিক কর্মী, সাহিত্যিক। পূর্ণ নাম সোমেন্দ্রকুমার চন্দ। ১৯২০ সালের ২৪ মে নরসিংদিতে তাঁর জন্ম। তিনি ঢাকার পোগোজ স্কুল থেকে এন্ট্রান্স (১৯৩৬) পাস করে ঢাকা মিটফোর্ড মেডিক্যাল স্কুলে ভর্তি হন, কিন্তু অসুস্থতার কারণে লেখাপড়া ছেড়ে দেন। তারপর তিনি ঢাকার প্রগতি লেখক সংঘ-এর সঙ্গে যুক্ত হন এবং মার্কসবাদী রাজনীতি ও সাহিত্যচর্চা শুরু করেন।
১৯৩৯ থেকে ১৯৪২ সাল পর্যন্ত সোমেন চন্দের সাহিত্যজীবনের পরিধি। তাঁর জীবদ্দশায় গ্রন্থাকারে কোনো রচনা প্রকাশিত হয়নি; অধিকাংশ রচনাই প্রগতি লেখক সংঘের সাপ্তাহিক ও পাক্ষিক বৈঠকে পঠিত হতো। সংঘের ক্রান্তি (১৯৪০) নামক সংকলনে তাঁর ‘বনস্পতি’ গল্পটি প্রকাশিত হয়। মৃত্যুর পর ঢাকা থেকে সংকেত ও অন্যান্য গল্প (১৯৪৩) এবং কলকাতা থেকে বনস্পতি ও অন্যান্য গল্প (১৯৪৪) প্রকাশিত হয়। রণেশ দাশগুপ্তের সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় তাঁর সমগ্র রচনা সোমেন চন্দের গল্পগুচ্ছ (১৯৭৩)। তাঁর বিখ্যাত গল্প ‘ইঁদুর’ পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে।
সোমেন চন্দের রাজনৈতিক জীবনের সঙ্গে সাহিত্যিক জীবন ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিল। তিনি রাজনৈতিক মতাদর্শের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে গল্পগুলিতে গণচেতনা ও অস্তিত্বের সংগ্রামের কথা বলেছেন। তাঁর গল্পের মৌলিক আবেদন ছিল গণসচেতনতা। ১৯৪২ সালের ৮ মার্চ ঢাকায় তাঁর মৃত্যু হয়।
-আবুল হাসনাত
তথ্যসূত্র : বাংলাপিডিয়া

Share us

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *